শেষ সময়ে ছাগলের কদর বাড়তি

শেষ সময়ে ছাগলের কদর বাড়তি

শেষ সময়ে ছাগলের কদর বাড়তি

ঈদের আর মাত্র একদিন বাকি। এই মুহূর্তে গরুর হাটে গরু নেই, তাই কদর বেড়েছে ছাগলের। গত কয়েকদিনের কোরবানির হাটের বাজার মূল্যের তুলনায় আজ (৩১ জুলাই) রাজধানীর প্রায় সকল হাটে গরুর দাম অতিরিক্ত বৃদ্ধি পাওয়ায় হাট থেকে হাটে ঘুরে বেড়াচ্ছেন নগর বাসিন্দারা। কোথাও কোথাও অতিরিক্ত টাকায়ও মিলছে না পছন্দসই গরু। হাটে গরুর অপ্রতুলতা দেখা দেয়ায় শেষ মুহূর্তে এখন ছাগলই ভরসা। সকাল থেকেই ছাগলের কদর বেড়েছে।
শুক্রবার সকালে সরেজমিনে রাজধানীর বিভিন্ন স্থান ঘুরে দেখা গেছে, পাড়া-মহল্লা থেকে শুরু করে ছোটবড় সড়কে ছাগলের অনির্ধারিত হাট বসেছে। যেখানে হাট সেখানেই মানুষের ভিড়। ছাগলের সরবরাহের তুলনায় ক্রেতার সংখ্যা বেশি হওয়ার সুযোগে বিক্রেতারাও অন্যান্য সময়ের চেয়ে ছাগলভেদে সর্বনিম্ন দুই হাজার থেকে ১০ হাজার টাকা বেশি দাম চাইছেন। গরু কিনতে না পেরে একাধিক ছাগল কিনে নিয়ে যাচ্ছেন অনেকে।
রাজধানীর পলাশী মোড়ের মিউনিসিপ্যাল মার্কেটের রাস্তার পাশে ছাগলের অনির্ধারিত হাট বসেছে। এ হাটে সাত বছর বয়সী ছেলেকে নিয়ে ছাগল কিনতে এসেছেন পলাশী স্টাফ কোয়ার্টারের বাসিন্দা সরকারি কর্মকর্তা আবদুস সালাম। বিক্রেতা ছোট একটি ছাগলের দাম চাইলেন ১১ হাজার টাকা।
সাত হাজার থেকে দরদাম শুরু করে শেষ পর্য়ন্ত নয় হাজার টাকায় ছাগল কিনতে সমর্থ হন আবদুস সালাম। এ প্রতিবেদকের সঙ্গে আলাপকালে তিনি বলেন, ‘এ ছাগলটির দাম কোনোভাবে সাত হাজার টাকার বেশ হওয়ার কথা নয়।’
বকশীবাজার মোড়ে এক তরতাজা ছাগলের দামাদামি করছিলেন মৌলভীবাজারের ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী শাহাদাত হোসেন। বিক্রেতা একদাম ২২ হাজার টাকা জানালে তিনি বলেন, ‘হাটে যে গরু নাই এ খবর পাইয়া মাথা গরম অইয়া গেছে। বড়জোর ১৫ হাজার টাকার ছাগল একদাম ২২ হাজার টাকা চাও?’
তার পাশে দাঁড়ানো এক তরুণকে লক্ষ করে তিনি বলছিলেন, ‘এত দাম দিয়ে কোরবানি দেয়ার মানে হয় না। চল বাসায় ফিরে যাই।’
এ প্রতিবেদকের সঙ্গে আলাপকালে তিনি বলেন, ‘প্রতিবছর কয়েকজন মিলে গরু কোরবানি দেই। করোনার কারণে ব্যবসা ভালো না হওয়ায় শেষ দিন গরু কিনব বলে মনস্থির করেছিলাম। কিন্তু শেষ সময়ে এসে হাটে গরু পাওয়া যাবে না- তা ভাবতে পারিনি। বাজেট ১২ থেকে ১৫ হাজার টাকা। কিন্তু পছন্দসই ছাগল কিনতে ২২ হাজার থেকে ২৫ হাজার টাকা লেগে যাবে।’
মোজাম্মেল হক নামে এক ছাগল বিক্রেতা বলেন, ‘ছাগলের মাংসের দাম এমনিতেই প্রতিকেজি ৯০০ টাকা। সে হিসাবে ছাগলের দাম বেশি। তার ওপর ঈদ সামনে রেখে কিছু লাভ করতেই তো গত কয়েকদিন কষ্ট করেছি।’
তবে হাটে গরু না থাকায় ছাগলের চাহিদা বেড়েছে। তাই বিক্রেতারা দাম বাড়িয়ে দিয়েছেন বলে তিনি স্বীকার করেন।
সূত্রঃ জাগোনিউজ

0/Post a Comment/Comments

নবীনতর পূর্বতন